Home সরকারি স্কলারশিপ Yuvasree Prakalpa 2023 | যুবশ্রী | Apply করলেই মিলবে 1500 টাকা

Yuvasree Prakalpa 2023 | যুবশ্রী | Apply করলেই মিলবে 1500 টাকা

পশ্চিমবঙ্গ সরকার নিবন্ধিত প্রার্থীদের উপবৃত্তি প্রদান করে। এই পরিকল্পনা যুবশ্রী প্রকল্প ( Yuvasree Prakalpa ) নামে পরিচিত। নিবন্ধিত প্রার্থীরা এই যুবশ্রী পরিকল্পনা 2023-এর অধীনে প্রতি মাসে RS 1500/- পাবেন।

by Swaccha Barta

পশ্চিমবঙ্গে যুবশ্রী পরিকল্পনা প্রকল্প ( Yuvasree Prakalpa ) :
কর্মসংস্থান ব্যাঙ্ক, চাকরির সন্ধান পোর্টাল পশ্চিমবঙ্গ সরকার বেকার প্রার্থীদের চাকরি প্রদানের মাধ্যমে সাহায্য করার জন্য চালু করেছে। এই উদ্যোগে সহায়তা পেতে, চাকরির বিষয়ে নিয়মিত তথ্য পেতে প্রার্থীদের এই ওয়েবসাইটে নিজেকে যুবশ্রী পরিকল্পনা 2023 নিবন্ধন করতে হবে এবং প্রার্থীরা তাদের শিক্ষাগত যোগ্যতার ভিত্তিতে চাকরি পেতে পারেন।

পশ্চিমবঙ্গ সরকার নিবন্ধিত প্রার্থীদের উপবৃত্তি প্রদান করে। এই পরিকল্পনা যুবশ্রী প্রকল্প নামে পরিচিত। নিবন্ধিত প্রার্থীরা এই যুবশ্রী পরিকল্পনা 2023-এর অধীনে প্রতি মাসে RS 1500/- পাবেন। প্রকল্পটি, এর যোগ্যতার মানদণ্ড এবং কীভাবে আবেদন করতে হবে ইত্যাদি সম্পর্কে আরও জানতে নীচের নিবন্ধটি পড়ুন।

Yuvasree Prakalpa 2023 –

দৈনন্দিন জীবনের ব্যবহৃত সামগ্রীর  মূল্য যেভাবে বেড়েই চলেছে তার সাথে সাথে দেশের বেকারত্ব সংখ্যা পাল্লা দিয়ে বেড়েই চলেছে. ঘরে ঘরে আজ স্নাতক বা স্নাতকত্তর ডিগ্রি নিয়েও ছেলেমেয়েরা বেকার হয়ে বসে আছে কিংবা সংসার চালাবার মত যে কোন  কাজের সাথে  যুক্ত হয়েছে। এই সমস্ত কর্মহীন যুবকদের কথা মাথায় রেখে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার অনেক ধরনের ভাতা বা প্রকল্প  চালু করেন,  এই ভাতা বা প্রকল্প জন্য বেকার  যুবসমাজ একটু হলেও স্বস্থির নিঃশ্বাস নিতে পারে। আমাদের রাজ্যের  মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী  এই যুবক সমাজদের জন্য এই যুবশ্রী প্রকল্প চালু করেন এবং এই প্রকল্পের জন্য অনেক যুবক যুবতী বেকারত্বের হাত থেকে বেঁচে গেছেন।

মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে পশ্চিমবঙ্গের  বেকার  যুবকদের জন্য এই যুবশ্রী প্রকল্পের সূচনা করেছিলেন।  এই প্রকল্পের আওতায়  যে সকল বেকার যুবক নাম তালিকাভুক্ত করাবে তাদেরকে মাসে ১৫০০ টাকা করে ভাতা রাজ্য সরকার দেবে বলে ঘোষণা করেছে। আসুন দেখে নেওয়া যাক এই যুবশ্রী প্রকল্পের বিষয়ে সমস্ত তথ্য। 

যুবশ্রী প্রকল্প 2023-এর জন্য অনলাইনে আবেদন করতে, আবেদনকারীদের অবশ্যই বিস্তারিতভাবে যোগ্যতার মানদণ্ড জানতে হবে। আবেদনকারীদের সাহায্য করার জন্য যুবশ্রী প্রকল্পের ( Yuvasree Prakalpa ) যোগ্যতার মানদণ্ড নীচে উল্লেখ করা হয়েছে – 

1 . সমস্ত আবেদনকারীদের পশ্চিমবঙ্গের বেকার স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে।
2. যে প্রার্থীরা ইতিমধ্যেই এমপ্লয়মেন্ট ব্যাঙ্কে নিজেদের নিবন্ধন করেছেন, তাদের ওয়েবসাইটে লগ ইন করতে হবে এবং যুবশ্রী প্রকল্পার জন্য আবেদন করতে পারবেন।
3.স্কিমের জন্য আবেদন করার জন্য আবেদনকারীদের ন্যূনতম অষ্টম শ্রেণী পাস হতে হবে।
4.যে প্রার্থীরা কোনও ধরনের আর্থিক সাহায্য পান বা রাজ্য বা কেন্দ্রীয় সরকারের কাছ থেকে কোনও ধরনের ঋণ পান তারা যুবশ্রী স্কিমের জন্য আবেদন করার যোগ্য নন৷
5.আবেদনকারীদের যোগ্য হতে 18 বছর থেকে 45 বছরের মধ্যে হতে হবে।
6. একটি পরিবারের শুধুমাত্র একজন বেকার ব্যক্তি এই স্কিমের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

যুবশ্রী প্রকল্প ( Yuvasree Prakalpa ) আবেদনপত্রের সাথে সংযুক্ত করার জন্য গুরুত্বপূর্ণ নথি- 

  1. আধার কার্ড        
  2. ভোটার আইডি কার্ড 
  3. প্যান কার্ড       
  4. ব্যাংক একাউন্ট ( পাসবুকের প্রথম পৃষ্ঠা )
  5. মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিকের মার্কশিট
  6. ইনকাম সার্টিফিকেট

আবেদনপত্রের সাথে, নথিগুলি সংযুক্ত করুন

কিভাবে যুবশ্রী প্রকল্প অনলাইনে আবেদন করবেন? আবেদনপত্র, নিম্নলিখিত নথি সংযুক্ত করুন

যুবশ্রী প্রকল্প ( Yuvasree Prakalpa ) এবং কর্মসংস্থান ব্যাঙ্কের জন্য নিজেকে নিবন্ধন পদক্ষেপগুলি অনুসরণ করুন 

  1. প্রথমে এমপ্লয়মেন্ট ব্যাংকের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে ( https://employmentbankwb.gov.in )  ক্লিক করতে হবে
  2.  তারপর ওয়েবসাইটে “নতুন তালিকাভুক্তি চাকরি সন্ধানকারী” লিঙ্কটি খুঁজুন এবং সেই লিঙ্কে ক্লিক করুন। লিঙ্কটি ক্লিক করার পরে একটি নতুন উইন্ডো খুলবে যেখানে “নিয়ম ও শর্তাবলী” থাকবে। সাবধানে শর্তগুলির মধ্য দিয়ে যান তারপর “স্বীকার করুন এবং চালিয়ে যান” বোতামটি ক্লিক করুন।
  3.  আবেদনকারীরা এখন একটি “নতুন তালিকাভুক্তি” ফর্ম পাবেন৷
  4.  আবেদনকারীদের ফর্মে জিজ্ঞাসা করা সমস্ত বিবরণ প্রদান করতে হবে এবং “জমা দিন” বোতামে ক্লিক করতে হবে।
  5.  সাবমিট বাটনে ক্লিক করার পর আবেদনকারীরা এখন তাদের নিবন্ধিত মোবাইল নম্বরে কিছু বিশদ বিবরণ পাবেন।
  6.  আবেদনকারীদের এখন তাদের প্রোফাইল সক্রিয় করতে এমপ্লয়মেন্ট ব্যাঙ্ক রেজিস্ট্রেশন নম্বর সহ সমস্ত বিবরণ সহ তাদের নিকটস্থ এমপ্লয়মেন্ট এক্সচেঞ্জ অফিসে যেতে হবে।
  7.  এমপ্লয়মেন্ট এক্সচেঞ্জের আধিকারিকরা আপনার সমস্ত নথি যাচাই করবে এবং সফল যাচাইকরণের পরে তারা আপনার এমপ্লয়মেন্ট ব্যাঙ্ক প্রোফাইল সক্রিয় করবে।
  8.  এখন প্রার্থীরা নিয়মিত বিজ্ঞপ্তি পাবেন এবং চাকরির আপডেট পাবেন।
  9.  এখন যখন আবেদনকারীরা কর্মসংস্থান ব্যাঙ্কে নিবন্ধিত হন তারা যুবশ্রী স্কিমের জন্য আবেদন করতে পারেন

উক্ত কাজগুলি সম্পূর্ণ হয়ে গেলে নিকটবর্তী এমপ্লয়মেন্ট এক্সচেঞ্জ অফিসে গিয়ে ৬০ দিনের মধ্যে এই অ্যাপ্লিকেশনের একটি প্রিন্ট আউট জমা করে আসতে হবে। এমপ্লয়মেন্ট এক্সচেঞ্জ অফিসার সেই অ্যাপ্লিকেশনের যাবতীয় তথ্য যাচাই করবেন |  এবং তারপরে আবেদনকারী যে ফোন নাম্বারটি  নথিভুক্ত করেছিল সেই নাম্বারে একটি USER ID এবং PASSWORD আসবে | আপনাকে অবশ্যই মনে রাখতে হবে এই অ্যাপ্লিকেশন ফর্মটি 60 দিনের মধ্যেই জমা দিতে হবে,  যদি 60 দিনের মধ্যে জমা দেওয়া না হয় তাহলে সেই ফর্মটি বাতিল হয়ে যাবে| এই ফর্ম জমা করার কিছু দিনের মধ্যে নির্বাচিত কর্মহীন যুবকদের নামের একটি লিস্ট বের হবে এবং পরের মাস থেকে তারা ১৫০০ টাকা করে বেকার ভাতা পাবে |

Coronavirus Update : করোনা-আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুণ, তৃতীয় তরঙ্গের পরে দ্রুততম লাফ

আমাদের রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মাননীয়া মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে অসংখ্য ধন্যবাদ এই বেকার ও শিক্ষিত যুবক সমাজকে ইতিবাচক উদ্যোগ কর্মহীন যুবক-যুবতীদের জীবনে আসার আলো জাগিয়ে তোলেন এবং রাজ্যবাসী  রাজ্য সরকারের এই যুবশ্রী প্রকল্পকে খুবই মান্যতা দিয়েছে. 

Related Articles

Leave a Comment