Home পশ্চিমবঙ্গ Nabanna Scholarship: মাধ্যমিক পাশ করলে ১০,০০০ টাকা দেবে সরকার! দেখুন কিভাবে পাবেন

Nabanna Scholarship: মাধ্যমিক পাশ করলে ১০,০০০ টাকা দেবে সরকার! দেখুন কিভাবে পাবেন

Nabanna Scholarship: সাম্প্রতিক বছরগুলিতে, পশ্চিমবঙ্গ সরকার বৃত্তি প্রদান করেছে ৬০% এর বেশি নম্বর পেলেই

by Swaccha Barta
Nabanna Scholarship

Nabanna Scholarship:

কবে মাধ্যমিক পরীক্ষার ফল প্রকাশ হবে, তা ঘোষণা করেছেন রাজ্য শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু। এর মাধ্যমে পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারীদের অপেক্ষার পর্ব শেষ হতে চলল তাদের জীবনের প্রথম পরীক্ষা। মাধ্যমিকের ফলাফল ঘোষণার পর যারা ভালো ফলাফল করবে তারা উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষায় ভর্তির পাশাপাশি একাধিক উপহার পাবে।

পশ্চিমবঙ্গ সরকারী স্কলারশিপ প্রোগ্রাম বিশেষ করে উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্য একটি বড় সুবিধা। একটা সময় ছিল যখন ছাত্ররা মাধ্যমিকে 75% এর বেশি নম্বর পেলে বৃত্তি পেত। যাইহোক, সাম্প্রতিক বছরগুলিতে, পশ্চিমবঙ্গ সরকার বৃত্তি প্রদান করেছে ৬০% এর বেশি নম্বর পেলেই|

এর একমাত্র উদ্দেশ্য হল বৃত্তির মাধ্যমে দরিদ্র পরিবারের শিশুদেরকে উচ্চশিক্ষা প্রদান করা। তবে এবার রাজ্য জুড়ে ছাত্রদের জন্য আরও বড় চমক নিয়ে এসেছে সরকার। মাধ্যমিক পাশ করলেই এবার পাওয়া যাবে স্কলারশিপের টাকা। নম্বরের কোন‌ও বাধা-নিষেধ সেভাবে থাকছে না।

পশ্চিমবঙ্গ সরকার নবান্ন স্কলারশিপ (Nabanna Scholarship) নামে একটি নতুন প্রোগ্রাম তৈরি করেছে। এর উদ্দেশ্যই হল মেধাবীদের পাশাপাশি সাধারণ ছাত্রছাত্রীরা যেন সরকারের স্কলারশিপের আনুকূল্য থেকে বঞ্চিত না হয়।  নবান্ন স্কলারশিপ প্রাথমিকভাবে সাধারণভাবে ছেলে এবং মেয়েদের উচ্চ শিক্ষার সাহায্য করতেই নবান্ন স্কলারশিপ নিয়ে আসা হয়েছে। এর ফলে মাধ্যমিক পাস করলেই  পাবে ১০,০০০ টাকা!

Nabanna Scholarship

সাধারণ রাজ্যের ছেলে এবং মেয়েদের অবশ্যই 50% স্কোর সহ মাধ্যমিক এবং উচ্চ বিদ্যালয় পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে। সেইসঙ্গে স্নাতক স্তরেও ৫০% নম্বর থাকলে সহজেই নবান্ন স্কলারশিপের ১০,০০০ টাকা পাওয়া যাবে। যাইহোক, এই বৃত্তি পাওয়ার জন্য, আপনাকে আপনার পড়াশোনা চালিয়ে যেতে হবে। কারণ এই বৃত্তির জন্য আবেদনপত্রের সাথে, আপনাকে অবশ্যই আপনার বর্তমান অধ্যয়নের স্থান সম্পর্কে সমস্ত প্রমাণ এবং নথি জমা দিতে হবে। Nabanna Scholarship এর জন্য আপনার বসবাসের প্রমাণ ছাড়াও পারিবারিক আয়ের প্রমাণ প্রয়োজন।

এই পশ্চিমবঙ্গ সরকারী বৃত্তির জন্য যোগ্য হতে, বার্ষিক পারিবারিক আয় ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকার মধ্যে থাকতে হবে। যদি ছাত্রটি অন্য রাজ্য বা কেন্দ্রীয় সরকারের বৃত্তিও পেয়ে থাকে তবে সে নবান্ন স্কলারশিপের জন্য যোগ্য নয়।

পড়ুয়ারা অন্য কোন‌ও স্কলারশিপ পান না মূলত তাঁদের কথা ভেবেই এটি নিয়ে আসা হয়েছে‌। নবান্ন স্কলারশিপের ওয়েবসাইটে গিয়ে ফর্ম ফিলাপ করার পর তার প্রিন্ট আউট নিতে হবে। সেই সঙ্গে প্রয়োজনীয় নথিপত্রের প্রতিলিপি জুড়ে ডাকযোগে দক্ষিণবঙ্গের পড়ুয়ারা নবান্নে এবং উত্তরবঙ্গের পড়ুয়ারা উত্তরকন্যায় স্কলারশিপের আবেদনপত্র পাঠাবেন।

এগুলিও পড়ুন  👇👇

1 . রাজ্যের খাদ্য বিভাগে কর্মী নিয়োগ

2 . AIIMS | Doctor List | Kalyani AIIMS online Appointment Booking

3 . আধার কার্ড নিয়ে বড় ঘোষণা

Related Articles

Leave a Comment